কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

শিশু বলাৎকার (ধর্ষণ) এর দায়ে মাওলানা মনছুর আলম (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে সশ্রম যাবজ্জীবন

কারাদণ্ড ও অর্ধ লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেছেন। অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরো এক বছর সশ্রম

কারাদণ্ডাদেশ দেন বিচারক। রোববার সকালে কক্সবাজারের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের

বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ ) জেবুন্নাহার আয়শা এ রায় ঘোষণা করেন। কক্সবাজারের নারী ও শিশু

নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউর রহমান রেজা এ

তথ্য নিশ্চিত করেছেন। কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামি কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদ ইউনিয়নের মধ্যম গজালিয়া গ্রামের আবদুল মজিদ এর ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৮সালের ৭ জুলাই রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের ৬ নম্বর

ওয়ার্ডের ছেংছড়ি গ্রামের আবদু সালামেরশিশুপুত্র মোবারক (১০) দোছড়ি জামে মসজিদে রাতে

অন্যান্যদের সাথে মাওলানা মনছুর আলমেরকাছে পড়াশুনা করে মসজিদে ঘুমিয়ে পড়ে। পরে রাত সাড়ে

১২টার দিকে মাওলানা মনছুর আলম শিশুমোবারককে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় মোবারকের পিতা আব্দু

সালাম বাদি হয়ে মাওলানা মনছুর আলমকেআসামি করে রামু থানায় ২০১৮ সালের ১০ জুলাই মামলা

দায়ের করেন। মামলায় মাওলানা মনছুরআলম ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় নিজে দোষ স্বীকার

করে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটেরকাছে জবানবন্দি দেন। কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

২০১৯ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি এ মামলার অভিযোগ গঠন করে ১০ জন সাক্ষী, আসামিপক্ষে ৫ জন সাফাই সাক্ষী নেওয়া হয়।

জেরা, যুক্তিতর্ক শেষে বিজ্ঞ বিচারক মামলায় রায়ঘোষণা করেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এরস্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউর

রহমান রেজা ও আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেনঅ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইব্রাহিম। শিশু বলাৎকার

(ধর্ষণ) এর দায়ে মাওলানা মনছুর আলম (৪০) নামেএক ব্যক্তিকে সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও অর্ধ লক্ষ

টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেছেন। অর্থদণ্ড অনাদায়েআরো এক বছর সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন বিচারক।

রোববার সকালে কক্সবাজারের নারী ও শিশুনির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ

) জেবুন্নাহার আয়শা এ রায় ঘোষণা করেন।কক্সবাজারের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর

স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট সৈয়দমোহাম্মদ রেজাউর রহমান রেজা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামি কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদ ইউনিয়নের মধ্যম গজালিয়া গ্রামের আবদুল মজিদ এর ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৮ সালের ৭ জুলাই রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের ৬ নম্বর

ওয়ার্ডের ছেংছড়ি গ্রামের আবদু সালামের শিশুপুত্র মোবারক (১০) দোছড়ি জামে মসজিদে রাতে

অন্যান্যদের সাথে মাওলানা মনছুর আলমের কাছে পড়াশুনা করে মসজিদে ঘুমিয়ে পড়ে। পরে রাত

সাড়ে ১২টার দিকে মাওলানা মনছুর আলম শিশু মোবারককে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় মোবারকের পিতা

আব্দু সালাম বাদি হয়ে মাওলানা মনছুর আলমকে আসামি করে রামু থানায় ২০১৮ সালের ১০ জুলাই

মামলা দায়ের করেন। মামলায় মাওলানা মনছুর আলম ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় নিজে দোষ

স্বীকার করে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দি দেন। ২০১৯ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি এ

মামলার অভিযোগ গঠন করে ১০ জন সাক্ষী, আসামিপক্ষে ৫ জন সাফাই সাক্ষী নেওয়া হয়। জেরা,

যুক্তিতর্ক শেষে বিজ্ঞ বিচারক মামলায় রায় ঘোষণা করেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন নারী

ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রা ইব্যুনাল-২ এর স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউর রহমান

রেজা ও আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ইব্রাহিম। কক্সবাজারে শিশু

ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।

Share

৭২ thoughts on “কক্সবাজারে শিশু ধর্ষণকারীর সশ্রম যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *